সেই সুইটিকে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার।

13401109876543.jpg

সুইটি আক্তার শিনুকে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে ঢাকার ৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ থেকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়েছে। গতকাল বুধবার এক তরুণ রিকশা চালককে প্রকাশ্যে মারধর করতে দেখা যায়। ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়লে আলোচনা-সমালোচনা ঝড় বয়ে যায়। এরই প্রেক্ষিতে দল তাকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয়। বিষয়টি ৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী আব্দুল হারুন টামস বিডি কে নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘বেশ কিছুদিন ধরেই তার বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ আসছিল। দলীয় কর্মকাণ্ডে তার আচরণ প্রশ্নবিদ্ধ করছিল দলকে। আমরা তাকে এর আগে বারবার সতর্ক করেছি কিন্তু তিনি সংশোধন হননি। বরঞ্চ একই ধরনের ঘটনা ঘটিয়েই যাচ্ছিলেন।’

আব্এদুল হারুন টামস বিডি কে আরো বলেন, ‘ঘটনা দিন দিন বেড়েই যাচ্ছিল। যার ফলে নির্বাহী কমিটির বৈঠকে তাকে দলের সমস্ত কর্মকাণ্ড থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। ১১ ডিসেম্বর তাকে মহিলা সম্পাদিকা ও প্রাথমিক সদস্যপদ থেকে বহিস্কার করা হয়েছে।’

গত বুধবার বিকেলে ফেসবুকে একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে দেখা যায় এক নারী, এক তরুণ রিকশাচালকের ওপর চড়াও হয়েছেন। তিনি নিজেই ওই রিকশার যাত্রী ছিলেন। দ্রুত রিকশা না চালানোর কারণে তিনি চটে যান। ভিডিওতে রিকশাচালকের ওপর মারমুখী অবস্থায় দেখা যায় তাকে।

এক পর্যায়ে প্রকাশ্য দিবালোকে সবার সামনে রিকশা থেকে নেমে চালকের গায়ে হাতও তোলেন তিনি। আবারো রিকশা উঠে হাতের ব্যাগ দিয়ে চালককে মারতে উদ্যত হন। ক্ষুব্ধ হয়ে তাকে লাথি ছুঁড়তেও দেখা যায়। পরে তার পরিচয় পাওয়া যায়।

Comments

comments

Top