চট্রগ্রামে মোটেল সৈকতে অভিযান।জামায়াতের ২শ কর্মী আটক

s-6-768x937.jpg

চট্টগ্রামের স্টেশন রোড়স্থ পর্যটন কর্পোরেশনের নিয়ন্ত্রিত মোটেল সৈকত হোটেলে অভিযান চালিয়ে জামায়াত-শিবিরের দুই শতাধিক নেতাকর্মী আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতদের সবাইকে কোতোয়ালী থানায় নেয়া হয়েছে।

শনিবার রাতে নগরীর স্টেশন রোডের মোটেল সৈকতে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।আটককৃতদের মধ্যে মহানগর জামায়াতের এসিস্টেন্ট সেক্রেটারী আ জ ম ওবায়দুল্লাহ রয়েছেন বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মহসিন বলেন, গোপন বৈঠক করার সময় তাদের আটক করা হয়েছে। তারা ওই মোটেলে রাষ্ট্র বিরোধী চক্রান্ত করছিল। গোপন খবর পেয়ে তাদেরে আটক করা হয়।

নগর পুলিশের উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) এস এম মোস্তাইন হোসাইন সাংবাদিকদের বলেন, “গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মোটেল সৈকতে আমরা অভিযান পরিচালনা করি। সেখান থেকে দুই শতাধিক ব্যক্তিকে আটক করা হয়। ঈদ পুনঃমির্লনীর নামে তারা সেখানে জড়ো হয়েছিল। তবে তারা পুলিশের কাছ থেকে কোন ধরনের অনুমতি নেয়নি। আমাদের কাছে সংবাদ ছিল জামায়াত-শিবিরের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা সেখানে জড়ো হয়ে গোপন বৈঠকে বসেছে।”

আটকদের পরিচয় যাচাই-বাছাই চলছে জানিয়ে পুলিশ কর্মকর্তা মোস্তাইন বলেন, তাদের মধ্যে যাদের বিরুদ্ধে আগে মামলা ছিল তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, আটকদের মধ্যে জামায়াত-শিবিরের উচ্চ পর্যায়ের নেতারাও আছেন। ‘পারাবার’ নামে একটি সংগঠনের ব্যানারে তারা ঈদ পুনঃমিলর্নী অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল। সংগঠনটি শিবিরের চট্টগ্রাম মহানগর দক্ষিণের সাংস্কৃতিক শাখা

Comments

comments

Top