ফেনীতে স্কুল ছাএী খুন

Feni-dalim20180301204637-768x424.jpg

:ফেনীতে রত্মা নামে এক এসএসসি পরীক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে একজনকে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন প্রতিবেশীরা।
পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিক ধারণা পুলিশের।

আদরের সন্তানকে হারিয়ে পাগলপ্রায় মা সালমা আক্তার। কোনো সান্তনাতে থামছে না তার কান্না। ফেনীর শহরের আনোয়ার উল্লাহ সড়কে সৌদি প্রবাসী আনিসুল হকের নিজ বাসার তৃতীয় তলায় থাকতেন স্ত্রী সালমা আক্তার ও তার ছোট মেয়ে রত্না।

বৃহস্পতিবার বিকেলে এক প্রতিবেশীর মৃত্যুর খবরে মেয়ে রত্নাকে বাসায় রেখে বের হন মা সালমা আক্তার। এ সময় প্রেমা নামে চারতলার এক ভাড়াটিয়া তৃতীয় তলায় গিয়ে রত্নার গলাকাটা লাশ দেখতে পায়।

প্রেমা বলেন, ‘বাসায় ঢুকে রত্না আপু, রত্না আপু বলে ডাকছি। আপু কোনো সাড়া দেয় নি। পরে আমি ভেতরের রুমে ঢুকছি। ঢুকে দেখি আপুর গলার মধ্যে ছুরি ঢুকানো। এরপর আমি চিৎকার দিয়ে সবাইকে ডেকে আনছি।’

ঘটনার পরপরই ঘরের ভেতর লুকিয়ে থাকা বিপ্লব নামে এক যুবককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন প্রতিবেশীরা। প্রতিবেশীরা বলেন, ‘ছেলেটাকে দেখেছি, পাশের রুম থেকে বের হইছে। তাকে হালকা একটু অস্বাভাবিক লাগছে।

ঘটনা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছে ফেনী মডেল থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রাশেদ খান। তিনি বলেন, ‘যে ছেলেটাকে পাশের ঘর থেকে আটক করা হয়েছে। তার শরীরে রক্ত মাখা। ঘটনার উদ্দেশ্যে কি ছিলো সেটা তদন্ত করে উদঘাটন করার চেষ্টা করা হবে।’

নিহত রত্না এবার পৌর বালিকা বিদ্যা নিকেতন স্কুল থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়।

Comments

comments

Top