তুফানের আসরে যেতেন যেসব মডেল ও নায়িকারা!

e847ca7ecb.jpg

সময়ের আলোচিত নাম বগুড়ার তুফান সরকার। এক কিশোরীকে ধর্ষণের পর মাসহ মেয়েকে নির্যাতন করে মাথা ন্যাড়া করে দেয়া এই সন্ত্রাসী ও ক্ষমতাসীন দলের জেলা পর্যায়ের নেতা এখন গোয়েন্দা পুলিশের রিমান্ডে।

মাত্র ২ বছর রাজনীতি করে কোটি কোটি টাকার মালিক বনে যাওয়া অশিক্ষিত এই তুফান সরকার জীবনযাপন করতো ভারতীয় সিনেমার মাফিয়াদের মতো। দলবল নিয়ে গাড়িতে সাইরেন বাজিয়ে আতংক সৃষ্টি করেই বগুড়া শহর দাপিয়ে বেরিয়েছেন। পরিবহন খাতের নেতা হওয়ার কারণে প্রতিদিনই কমপক্ষে ৫ লাখ টাকা চাঁদা আদায় করতেন তুফান। পাশাপাশি বড় ভাই বহিষ্কৃত যুবলীগ নেতা মতিন সরকারের জুয়ার আসরের টাকাও তুলতেন তিনি।

হঠাৎ ধনী বনে যাওয়া এই তুফান প্রতিরাতেই নারী ও মদ নিয়ে পড়ে থাকতেন। আসক্ত ছিলেন ইয়াবাতেও। ইয়াবা বিক্রির পাশাপাশি তিনি সেবনও করতেন। প্রশাসনের লোকদের নিয়মিত মাসোহারা দিয়েই অপকর্ম চালিয়ে যেতেন। এমনকি তাদের খুশি করতে ঢাকা থেকে উঠতি সুন্দরী মডেল এবং এক সময়ের বাংলা সিনেমার অশ্লীল নায়িকাদেরও নিয়ে আসতেন।

তুফানের ঘনিষ্ঠ এক বন্ধু যিনি নিয়মিত তার সঙ্গে রাতের পার্টি করতেন নাম প্রকাশ না করার শর্তে টাইম্‌স বিডি নিউজ কে বলেন, বাংলা সিনেমার ২ জন নায়িকাসহ আরো ৪ জন সুন্দরী মডেলের সঙ্গে কানেকশন ছিল তুফানের। টাকার বিনিময়ে তাদেরকে বিমানের টিকেট দিয়ে সৈয়দপুর থেকে গাড়িতে করে বগুড়া নিয়ে আসতেন। শহরের দু’টি অভিজাত হোটেলে তাদের রাখা হতো এবং রাত হলেই উন্মাদ আসর জমে উঠতো নাচে গানে।

বগুড়াতে মেয়েকে ধর্ষণের পর মা ও মেয়েকে চুল কেটে ন্যাড়া করে দেয়ার মতো ঘটনার পর দেশের সবার দৃষ্টি এখন এই শহরটির দিকে। শহরের মাদক সম্রাট ও ত্রাসখ্যাত তুফান সরকার ও মতিন সরকারের রাজত্ব চলতো এই শহরে।

তুফান সরকার নানা অপকর্মে জড়িত থেকেও বাগিয়েছেন আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন শ্রমিক লীগের শহর শাখার শীর্ষ পদ।

এই তুফান ছাত্রী ধর্ষণ ও নির্যাতনের ঘটনার মূল হোতা। গত শুক্রবার রাতে ধর্ষণ ও অপহরণ মামলায় বগুড়া সদর থানার পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে তাকে। রোববার জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালত তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন তার। এ ঘটনা তোলপাড় পড়ে যাওয়ায় সংগঠন থেকে তাকে অবশেষে বহিষ্কারও করা হয়েছে।

বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরিফুর রহমান মণ্ডল বলেন, ছাত্রী ধর্ষণ ও নির্যাতনের দুটি মামলাসহ তুফান সরকারের বিরুদ্ধে হত্যা, হত্যাচেষ্টা, মাদক ব্যবসাসহ নানা অপরাধে পুলিশের নথিতে ৬টি মামলার তথ্য রয়েছে। এর মধ্যে ২০১৫ সালে র‌্যাব কয়েক শ বোতল ফেনসিডিলসহ তুফান সরকারকে তার বাসা থেকে গ্রেপ্তার করেছিল। এ ছাড়া ২০১৩ সালে যুবদল নেতা ইমরান হত্যা মামলারও আসামি এই তুফান সরকার।

Comments

comments

Top