জনদৃষ্টি ভিন্ন দিকে ফেরাতেই ফরহাদ মজহার অপহরণ : রিজভী

rezbi20170705162800.jpg

জনদৃষ্টি ভিন্ন দিকে ফেরাতে সরকার বিশিষ্ট কবি ও রাষ্ট্রচিন্তক ফরহাদ মজহারকে অপহরণ করেছিল বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর বাড্ডায় শানজি চাইনিজ রেস্টুরেন্টে দলের প্রাথমিক সদস্য নবায়ন ও সদস্য সংগ্রহ অভিযান উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ অভিযোগ করেন তিনি।

রিজভী বলেন, অবৈধ পার্লামেন্টে পাশ হওয়া সংবিধানের ১৬ তম সংশোধনী সুপ্রিম কোর্ট বাতিল করে দিয়েছে। ফলে সেই রায়ের প্রতি ব্যাপক জনদৃষ্টি পড়েছে। সরকার জনগণের সেই দৃষ্টি ও আস্থাকে অন্যদিকে ফেরাতেই ফরহাদ মজহারকে অপহরণের নাটক মঞ্চস্থ করেছে।

প্রসঙ্গত, দুই মাসব্যাপী প্রাথমিক সদস্য নবায়ন এবং সদস্য সংগ্রহ অভিযানে নেমেছে বিএনপি। গত ১ জুলাই রাতে কেন্দ্রীয়ভাবে এই কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। আর ঢাকা মহানগরীতে তৃণমূল পর্যায়ে আজ এই কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন রুহুল কবির রিজভী।

মহানগরীর বাড্ডা থানা বিএনপির উদ্যোগে এই কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়। চলবে আগামী ১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, ফরহাদ মজহারকে গুম করার ১৬ ঘণ্টা আগে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমান সংবাদ সম্মেলন করেছিলেন। ভারতে মুসলিম নিধনের প্রতিবাদ করেছিলেন। ফ্রিজে গরুর মাংস রাখার মিথ্যা অজুহাতে মুসলমানদের পিটিয়ে হত্যা করা হচ্ছে। ফ্রিজে রাখা খাসির মাংসকে বলা হচ্ছে গরুর মাংস।

তিনি বলেন, ‘সবার মানবাধিকার থাকবে, মুসলমানদের মানবাধিকার থাকবে না’। এই অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছিলেন মাহমুদুর রহমান। সেখানে পাশে বসেছিলেন বিশিষ্ট কবি ফরহাদ মজহার। এই অপরাধে তাকে অপহরণ করা হয়।

তিনি বলেন, জনদৃষ্টিকে অন্য দিকে নিয়ে যাওয়ার জন্য ফরহাদ মজহারকে অপহরণ করা হয়। বাংলাদেশের ৯০ থেকে ৯১ ভাগ মানুষ মুসলমান। এই অন্যায় আচরণের কারণে এদেশে ভারত বিরোধী সেন্টিমেন্ট যাতে না হয় সে জন্যই ফরহাদ মজহারকে অপহরণ করা হয়েছিল।

রিজভী বলেন, এই নাটকের ডাইরেক্টর, প্রডিউসার, প্রোডাকশন ম্যানেজার সব কিছুই সরকার, অন্য কেউ নয়। কিন্তু এ কথা বললে সরকারের মন্ত্রীরা খুব রাগ ও উষ্মা প্রকাশ করেন।

সরকারের সমালোচনা করে বিএনপির এই নেতা বলেন, অপহরণ ও গুমের ঘটনা সবইতো সরকারের বৈশিষ্ট্যের মধ্যে। এটা যদি কোনো ছিঁচকে সন্ত্রাসী হতো তাহলে এক কথা ছিল। বিএনপি নেতা এম ইলিয়াস আলী, সাইফুল ইসলাম হীরু, হুমায়ুন পারভেজ, চৌধুরী আলমকে গুম হয়েছেন। এই কাজগুলো আপনারাই করেছেন।

তিনি বলেন, অপহরণ, গুম-খুনের সংস্কৃতি আপনাদের। এখন যত কথাই বলেন না কেন, গোটা জাতি বিশ্বাস করে ফরহাদ মজহারকে আপনারাই অপহরণ করে ছিলেন।

বাড্ডা থানা বিএনপি সভাপতি এজিএম শামসুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. আব্দুস সালাম আজাদ, কেন্দ্রীয় নেতা অধ্যাপক আমিনুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর উত্তরের সিনিয়র সহ-সভাপতি মুন্সী বজলুল বাছিদ আঞ্জু, উত্তর যুবদলের সভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর, মহিলা দলের পেয়ারা মোস্তফা প্রমুখ।

Comments

comments

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top